শেরপুরে মহাসড়ক ৪ লেন প্রকল্পে কপাল পুড়ল চা বিক্রেতা রায়হানের

প্রধান খবর বগুড়ার সংবাদ

এস,আই শাওন:
চা বিক্রেতা রায়হান। বগুড়ার শেরপুর উপজেলার মির্জাপুর রানীরহাট মোড় এলাকায় যার চায়ের দোকানদার। নিজস্ব কোন জায়গা জমি না থাকায় রাস্তার পাশের সরকারি জায়গায় দীর্ঘ ১৫/১৬ বছর ধরে চায়ের দোকান দিয়ে অন্যের বাড়িতে ভাড়া থেকে চলছিল রায়হানের জীবন সংসার।

কিন্তু সম্প্রতি ঢাকা-বগুড়া মহাসড়ক চার লেন সম্প্রসারণ কাজের জন্য ভেঙ্গে ফেলা হয় রায়হানের দোকান ঘরটি। রায়হানের ৫ জনের সংসারের আয় রোজগারে একমাত্র অবলম্বন চায়ের দোকান ঘরটি রাস্তার কাজের জন্য ভাঙ্গা পড়ায় বিপাকে পড়েছে তার পরিবার।

উল্লেখ্য, ঢাকা-বগুড়া মহাসড়ক চার লেন সম্প্রসারণ কাজের জন্য সড়ক সংলগ্ন জায়গার মালিকরা জায়গা এবং স্থাপনার ক্ষতি পুরণ পেয়েছে। পাশাপাশি যারা সরকারী জায়গায় রুটি রুজির ব্যবস্থা করে চলছিল তাদেরকেও দেয়া হয়েছে স্থাপনার ক্ষতি পূরণ। কিন্তু, রায়হানের দোকান ঘরটি ভাঙ্গা পড়লেও এর জন্য সে কোন ক্ষতি পূরণও পায়নি। যারফলে খেয়ে না খেয়ে অনাহারে মানবেতর জীবন যাপন করতে হচ্ছে রায়হানের পরিবারকে।

এ প্রসঙ্গে চায়ের দোকানদার রায়হান আক্ষেপ করে বলেন, তার রোজগারের একমাত্র সম্বলটুকু হারিয়ে সে এখন দিশেহারা হয়ে পড়েছে। সে যদি ক্ষতি পুরণ পায় তাহলে অন্যত্র গিয়ে একটি ঘর নির্মান করে আবার চায়ের দোকান দিতে পারবে। কিন্তু দোকান দেওয়ার মত তার কোন অর্থ না থাকায় সে এখন ঘরও দিতে পারছে না। অন্যদিকে, আয় রোজগার না থাকায় ৫ জনের সংসার নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করতে হচ্ছে রায়হানকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *