ধুনটে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে ভিক্ষুককে হত্যা; দুই আসামীর দায় স্বীকার

প্রধান খবর বগুড়ার সংবাদ

তারিকুল ইসলাম,ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি:

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে বৃদ্ধা ভিক্ষুক হাসিলা খাতুন (৪১) কে শ্বাসরোধ করে হত্যার দায় স্বীকার করেছে দুই আসামী। আদালতে দেয়া ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিতে এই হত্যার দায় স্বীকার করেছে তারা। দায় স্বীকারকারী আসামীরা হলেন, উপজেলার কালেরপাড়া ইউনিয়নের কচুগাড়ি গ্রামের সামছুল মন্ডলের ছেলে বাদশা আলম (২৮) ও আনারপুর হঠাৎপাড়া গ্রামের বাদু মন্ডলের ছেলে ফজলুল হক (৩২)। এর আগে নিহত হাসিলা বেগমের মোবাইল ফোনের কললিষ্টের সূত্র ধরে ১৬ অক্টোবর রাতে আসামীদের নিজ নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়।

আজ (১৮ অক্টোবর) রবিবার মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ধুনট থানার এসআই আকবর আলী এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, বগুড়া আমলি আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট খালিদ হাসান গত শনিবার সন্ধ্যায় আসামীদের জবানবন্দি গ্রহণ করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

উল্লেখ্য, ধুনট উপজেলার কালেরপাড়া ইউনিয়নের ঘুগরাপাড়া গ্রামের শুকর আলী মন্ডলের মেয়ে বিধবা হাসিলা খাতুন (৪১) গ্রামে গ্রামে ঘুরে ভিক্ষাবৃত্তির মাধ্যমে জীবিকা নির্বাহ করতো। গত ১৩ অক্টোবর সকালে বাড়ির পাশের ধানক্ষেতের পাশের এক পতিত জমি থেকে গলায় ওড়না দিয়ে ফাঁস লাগানো অবস্থায় হাসিলা তার লাশ উদ্ধার করে থানা পুলিশ। জানা যায, ঘটনার আগের দিন ১২ অক্টোবর সন্ধ্যায় ভিক্ষা শেষে বাড়ি ফিরে পাশের আনারপুর গ্রামে বোনের বাড়ি গিয়েছিলেন হাসিলা খাতুন। ফেরার পথে তাকে ধানক্ষেতের পাশে নিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে ঘাতকরা।

এ প্রসঙ্গে ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) কামরুজ্জামান মিঞা বলেন, দুই আসামি বাদশা আলম ও ফজলুল হক ভিক্ষুক হাসিলাকে ধর্ষণ করার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে তাকে হত্যা করে বলে দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছে। আদালতের নির্দেশে তাদের বগুড়া জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *