শেরপুরে কমিউনিটি সচেতনতামুলক সভা অনুষ্ঠিত

প্রধান খবর বগুড়ার সংবাদ

এস,আই শাওন:

বগুড়ার শেরপুর থানার আয়োজনে ইউএনএফপিএ বাংলাদেশের সহযোগিতায় সাসটেইনেবল ইনিশিয়েটিভ টু প্রোটেক্ট ওমেন এ্যান্ড গার্লস ফ্রম জিবিভি প্রকল্পের আওতায় ২৬ ডিসেম্বর শনিবার বিকেলে শেরপুর শহরের উলিপুরস্থ জেলা পরিষদ অডিটরিয়ামে কমিউনিটি সচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শেরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ শহিদুল ইসলাম শহিদ উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতি হিসেবে স্বাগত বক্তব্য রাখেন।

পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদের সঞ্চলনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন- শেরপুর-ধুনট নির্বাচনী এলাকার সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব হাবিবর রহমান। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা মো. লিয়াকত আলী সেখ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (শেরপুর-ধুনট সার্কেল) মো. গাজিউর রহমান, শেরপুর পৌরসভার মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আব্দুস সাত্তার, বগুড়ার বার এসোসিয়েশনের সভাপতি এ্যাড. গোলাম ফারুক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব আম্বিয়া, শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মকবুল হোসেন, টাউন ফাঁড়ির ইনচার্জ হারুন অর রশিদ, ইউএনএফপিএ’র বগুড়া জেলা প্রতিনিধি তামিমা নাসরিন, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সুবীর কুমার পাল, সাপ্তাহিক তথ্যমালা পত্রিকার সম্পাদক সুজিত বসাক, ভবানীপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, শেরপুর শহীদিয়া কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাও. হাফিজুর রহমান, শেরপুর থানার নারী কনস্টেবল (নারী ও শিশু হেল্প ডেস্ক) তহুরা খাতুন, শেরপুর সরকারি ডি,জে মডেল স্কুলের শিক্ষিকা মোছা. সোহেলা পারভিন, শেরপুর সরকারি ডিগ্রী কলেজের ছাত্রী শারমিন আকতার শীলা, গণমাধ্যম কর্মী, মসজিদের ইমামগন, বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান, ইউপি সদস্য, বিভিন্ন স্কুল কলেজের শিক্ষক শিক্ষিকা, ছাত্র-ছাত্রী বিবাহ নিবন্ধকসহ গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধে সর্ব প্রথমে পরিবারকেই ভুমিকা রাখতে হবে। নারীকে তার সকল কাজের সুযোগ সুবিধা দিতে হবে। নারী বৈষম্য দুর করতে হবে। নারী বৈষম্য যদি দুর করা যায় তাহলে ধর্ষন, নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধ করা সম্ভব। পুরুষের পাশাপাশি নারীকেও পরিবারের কাজে সহযোগিতা করতে হবে তার মতামতের গুরুত্ব দিতে হবে।

এ ছাড়াও অপ্রাপ্ত বয়স্ক নারীদের প্রাপ্ত বয়সের সনদ না দেয়ার জন্য ইউনিয়ন পরিষদের প্রতিনিধি এবং প্রাপ্ত বয়স্কের সনদ ছাড়া নিবাহ নিবন্ধকদের বিয়ে রেজিষ্ট্রি না করার জন্য আহবান জানানো হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *