মুন ও মাহি হোমিও হলকে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত

প্রধান খবর বগুড়ার সংবাদ

পারভীন লুনা,বগুড়া:

বগুড়ায় মেয়াদবিহীন, অননুমোদিত হোমিও ওষুধ রাখার দায়ে মুন ও মাহি হোমিও হলকে সাড়ে তিন লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এ সময় মুন হোমিও হলের গুদামে সিলগালা করে দেয় ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বুধবার (৩ ফেব্রুয়ারি) সাড়ে ১১ টার দিকে শহরের গালাপট্টি এলাকায় জেলা প্রশাসনের নেতৃত্বে এই ভ্রাম্যমাণ অভিযান পরিচালনা করেন সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী হাকিম পাপিয়া সুলতানা ও মো. তাসনিমুজ্জামান।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্র জানায়, বিষাক্ত মদপানের ঘটনার পর জেলা প্রশাসন শহরের হোমিও ওষুধের দোকানগুলোয় অভিযান পরিচালনা করেছে। অভিযানে মুন হোমিও হল মেয়াদোত্তীর্ণ ও অনুমোদিত ওষুধ পাওয়া যায়। এ অপরাধে মুন হোমিও হলকে ওষুধ আইন ১৯৪০ অনুযায়ী এক লাখ ৭০ হাজার টাকা এবং ভোক্তা অধিকার আইনে ৩০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেন। এ সময় প্রতিষ্ঠানের গুদামটি সিলগালা করা হয়। এ ছাড়াও বড় এক বস্তা হোমিও ওষুধ জব্দ হয়েছে।

একই অভিযানে পাশের প্রতিষ্ঠান মাহি হোমিও হলে গেলে সেখানেও অনুমোদিত একাধিক ওষুধ পাওয়া যায়। এ কারণে ওষুধ আইন ১৯৪০ অনুযায়ী দেড় লাখ টাকা জরিমানা করেন নির্বাহী হাকিম। পাশাপাশি বড় দুটি কার্টনে ওষুধ জব্দ করা হয়।

এসব তথ্য নিশ্চিত করে জেলা ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক শরিফুল ইসলাম বলেন, ‘জব্দকৃত ওষুধ পৌরসভার গ্যারেজে নির্ধারিত স্থানে ধ্বংস করা হয়েছে।’

প্রসঙ্গত, বগুড়ায় গত রোববার থেকে মঙ্গলবার রাত আটটা পর্যন্ত বগুড়ায় ১৬ জনের অস্বাভিক মৃত্যু হয়েছে। পুলিশ বলছে, এর মধ্যে আটজন বিষাক্ত মদ্যপানে মৃত্যু হয়েছে। অন্যরা বিভিন্ন কারণে মারা গেছেন।

তবে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারি পরিচালক আব্দুল ওয়াদুদ বলছেন, বগুড়ার এই ঘটনায় বুধবার দুপুর পর্যন্ত বিষাক্ত মদ্যপানে চারজনের মৃত্যু হয়েছে।

আর নিহতের স্বজনদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, এ পর্যন্ত জেলায় অন্তত ১৬ জনের অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। স্থানীয় জনগণ ও স্বজনরা বলছেন, পুলিশের নিশ্চিত করা ব্যক্তিরা বাদে অন্যরাও বিষাক্ত মদ্য পান করেছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *