ধুনটে শিশুকে জবাই করে হত্যা

প্রধান খবর বগুড়ার সংবাদ

তারিকুল ইসলাম. ধুনট (বগুড়া) থেকে

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় তাওহিদ সরকার নামের ৫ বছর বয়সী এক শিশুকে জবাই করে হত্যা করা হয়েছে। শুক্রবার সকাল ১১টায় উপজেলার এলাঙ্গী ইউনিয়নের ফকিরপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত তাওহিদ ওই গ্রামের মালয়েশিয়া প্রবাসী আব্দুল গফুর সরকারের ছেলে।

থানা পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, শুক্রবার সকালে শিশু তাওহিদকে শয়ন ঘরে ঘুমিয়ে রেখে মা দুলালী খাতুন বাড়ির সামনে আবাদী জমিতে কাজ করছিল। এসময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যরাও বাড়িতে ছিল না। সকাল ১১টায় দুলালী খাতুন ঘরে ফিরে শিশু তাওহিদকে গলাকাটা অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন। খবর পেয়ে গলাকাটা তাওহিদের দেহ উদ্ধার করে চাচা সোলায়মান আলী ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে কত্যর্বরত চিকিৎসক তাওহিদকে মৃত ঘোষণা করেন। এদিকে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে তাওহিদকে হত্যায় ব্যবহৃত রক্তমাখা বটি উদ্ধার করেছে।

নিহত তাওহিদের মা দুলালী খাতুন বলেন, সকালে আমি শ্বাশুড়ির সঙ্গে বাড়ির সামনে আবাদী জমিতে কাজ করছিলাম। এসময় বাড়িতে কেউ ছিল না। তখন তাওহিদ আমাদের ঘরে ঘুমিয়ে ছিল। আমি ঘরে ফিরে তাওহিদকে গলাকাটা রক্তাক্ত অবস্থায় পরে থাকতে দেরি। তখনই চিৎকার দিয়ে ছেলেকে কোলে নিয়ে ঘর থেকে বের হই। এক প্রশ্নের জবাবে দুলালী খাতুন বলেন, কে এমন ঘটনা ঘটিয়েছে, তা বলতে পারছি না।

শিশু তাওহিদের চাচা সোলায়মান সরকার বলেন, আবাদী জমিতে কাজ শেষে বাড়ি ফিরছিলাম। খবর পেয়ে গলাকাটা অবস্থায় ভাতিজাকে নিয়ে দ্রুত হাসপাতালে যাই।

ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. পিয়াস পারভেজ বলেন, শিশু তাওহিদের গলা ধারালো অস্ত্র দিয়ে কাটা হয়েছে। হাসপাতালে আনার পূর্বেই সে মারা গেছে।

ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। শিশু তাওহিদকে হত্যায় ব্যবহৃত রক্তাক্ত বটি উদ্ধার করা হয়েছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হচ্ছে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, প্রাথমিক ভাবে শিশু তাওহিদকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে। তবে হত্যাকান্ডের কারন অনুসন্ধানে পুলিশ তদন্ত করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *