বগুড়ার শেরপুরে একুশের ভোরে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে ঝড়ল ৬ প্রাণ, আহত-১৫

প্রধান খবর বগুড়ার সংবাদ

এস,আই শাওন:

বগুড়ার শেরপুরে যাত্রীবাহী বাস ও পাথরবোঝাই ট্রাকের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষে উভয়গাড়ীর চালকসহ ছয়জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো অন্তত ১৫ জন যাত্রী। তাঁদেরকে বগুড়ায় শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রবিবার (২১ফেব্রুয়ারি) সকাল ছয়টার দিকে উপজেলার ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের পৌরশহরের কলেজরোড নামক স্থানে এই দুর্ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনায় নিহতরা হলেন শেরপুর পৌর শহরের গোসাইপাড়ার মৃত মনিদ্রনাথের ছেলে বাবলু সাহা বাঘা (বাসের চালক) (৫৫), চালকের সহকারী ইদ্রিস আলী (৪০)। তাঁর বাড়ি শেরপুর উপজেলার ধনকুন্ডি গ্রামে। ট্রাক চালক খুলনার হাসিবুল ইসলাম ( সাদ্দাম হোসেন) (৫০) যাত্রী শেরপুর উপজেলার ধনকুন্ডি গ্রামের রজব আলীর ছেলে ইদ্রিস আলী (৪৮), মুন্সিগঞ্জ জেলার বিক্রমপুরের মৃত মিঠু শেখের ছেলে আকতার হোসেন (৫৫)। বগুড়া শহরের নিশিন্দারা শাহ পাড়ার ইয়াছিন আলী (৬৫) ও তার স্ত্রী স্বপ্না বেগম (৬০)।

এদিকে দুর্ঘটনা কবলিত বাস-ট্রাক মহাসড়কের মধ্যে উল্টে পড়ে থাকার কারণে যানচলাচল বন্ধ রয়েছে। ফলে মহাসড়কের উভয়পাশে অসংখ্য যানবাহন আটকে তিন কিলোমিটারজুড়ে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশের যৌথ উদ্ধার অভিযান চলছিল।

শেরপুর ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার রতন হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা বগুড়াগামী এসআর ট্রাভেলস পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস (ঢাকা মেট্রো ব-১৪-৬০৯৯) উক্ত স্থানে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা পাথরবোঝাই ট্রাকের (ঢাকা মেট্রো ট-১৩-০০৫৩) মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই বাসের চালক-হেলপার ও ট্রাকের চালকসহ মোট ছয়জন নিহত হন। সেই সঙ্গে আহত হন আরো অন্তত ১৫ জন যাত্রী। তাদেরকে প্রথমে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নেয়া হয়। কিন্তু অবস্থার অবনতি ঘটলে তাৎক্ষনিক বগুড়ায় শজিমেক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

নিহতদের লাশ ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের সহকারী পরিচালক (বগুড়া ও জয়পুরহাট) আবদুল হামিদের মাধ্যমে হাইওয়ে পুলিশের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে। অন্যদিকে, ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশের যৌথ তৎপরতায় যানচলাচল এখন স্বাভাবিক রয়েছে বলে জানান এই স্টেশন কর্মকর্তা।

এ ঘটনায় হাইওয়ে পুলিশ বগুড়া রিজিয়নের মো: রায়হান ইবনে রহমান ও শেরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ লিয়াকত আলী শেখ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *