সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যার প্রতিবাদে শেরপুরে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত

প্রধান খবর বগুড়ার সংবাদ

মৌসুমী ইসলাম:

সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যার প্রতিবাদে বগুড়ার শেরপুরে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশ তৃণমূল সাংবাদিক কল্যাণ সোসাইটি শেরপুর উপজেলা শাখা ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল বার্তা বাজারের যৌথ আয়োজনে এ মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

(২৫ ফেব্রুয়ারি) বৃহস্পতিবার বেলা তিনটায় বাংলাদেশ তৃণমূল সাংবাদিক কল্যাণ সোসাইটি শেরপুর উপজেলা শাখার আহ্বায়ক সেলিম রেজার সভাপতিত্বে ও যুগ্ম আহবায়ক আবু রায়হানের সঞ্চালনায় উপজেলার বাসস্ট্যান্ডে ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কে ঘন্টাব্যপী এ মানববন্ধন শেষে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ তৃণমূল সাংবাদিক কল্যাণ সোসাইটি কেন্দ্রীয় কমিটির তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সালাম মীর, শেরপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, সাপ্তাহিক তথ্যমালা পত্রিকার সম্পাদক সুজিত কুমার বসাক, অনলাইন নিউজ পোর্টাল বার্তা বাজারের শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি রাশেদুল হক, বাংলাদেশ তৃণমূল সাংবাদিক কল্যাণ সোসাইটি বগুড়া জেলা শাখার সিনিয়র সহ-সভাপতি, জাতীয় দৈনিক ডেল্টা টাইমস্ এর শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি শহিদুল ইসলাম শাওন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ও দৈনিক দৃষ্টিকোন পত্রিকার শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি আবু বকর সিদ্দক, সাংবাদিক উৎপল মালাকার, দৈনিক সকালের সময় প্রতিনিধি জিয়াউদ্দিন লিটন, এশিয়ান টিভির শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি মোতালেব হোসেন, সাংবাদিক আব্দুর রাজ্জাক, মিলন, শ্রী অশোক, সরোয়ার জাহান, আব্দুর রাজ্জাক প্রমূখ।

সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যার প্রতিবাদে বগুড়ার শেরপুরে আয়োজিত মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখছেন বাংলাদেশ তৃণমূল সাংবাদিক কল্যাণ সোসাইটি কেন্দ্রীয় কমিটির তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সালাম মীর।

মানববন্ধনে বক্তারা, বারবার সাংবাদিকদের হত্যা, অত্যাচার, নির্যাতন ও নিপীড়ন করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন। এগুলোর বিচার ও জড়িতদের আইনের আওতায় এনে সর্বোচ্চ শাস্তির ব্যাবস্থা করার দাবী জানান তারা। আর যেন কোন ভাই খুন না হয়, আর যেন প্রতিবাদ মানববন্ধনে রাস্তায় কোন সাংবাদিকদের দাঁড়াতে না হয়, এমনটাই আশা করেন শেরপুরের সাংবাদিকরা। মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে সাগর-রুনিসহ সকল সংবাদিক হত্যাকান্ডের বিচারের দাবী জানানো হয়।

উল্লেখ্য, গত ১৯ ফেব্রুয়ারি বিকেলে কোম্পানিগঞ্জে চাপরাশিরহাট পূর্ব বাজারে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। এসময় সংঘর্ষের ছবি ও ভিডিও ধারণ করতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ হন সাংবাদিক মুজাক্কির। পরে স্থানীয়রা প্রথমে তাকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখান থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরদিন শনিবার রাত ১০টা ৪৫ মিনিটে তিনি মারা যান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *