বগুড়ার শেরপুরে কৃষকের অ্যাপে বোরো ধান সংগ্রহের উদ্বোধন

প্রধান খবর বগুড়ার সংবাদ

এস,আই শাওন:

সারাদেশের মতো বগুড়ার শেরপুরে শুরু হয়েছে খাদ্য বিভাগের পক্ষ থেকে অভ্যন্তরীণ বোরো ধান সংগ্রহ অভিযান। ধান সংগ্রহ অভিযানে নিয়ে অনিয়ম রোধে এবার কিছুটা ভিন্ন পদ্ধতিকে অনলাইন কৃষকের অ্যাপে ধান সংগ্রহ করা হচ্ছে। কৃষকের অ্যাপে নিবন্ধন ও আবেদন হওয়ার পর কম্পিউটার মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয়ভাবে লটারিতে কৃষক নির্বাচন করে তাদের কাছ থেকে কেনা হচ্ছে ধান।

সোমবার (১০ মে) বেলা ১১টায় বগুড়ার শেরপুর উপজেলার ধুনটমোড় এলএসডি গুদামে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: ময়নুল ইসলামের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে কৃষক আ্যাপে ধান সংগ্রহ উদ্বোধন করেন (বগুড়া-৫) শেরপুর ধুনট নির্বাচনী এলাকার জাতীয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব হাবিবর রহমান।
আরো উপস্থিত ছিলেন, শেরপুর থানা অফিসার ইনচার্জ শহিদুল ইসলাম শহিদ, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা সেকেন্দার রবিউল ইসলাম, খাদ্য গোডাউনের ভারপ্রাপ্ত অফিসার রাশেদুল ইসলাম, শেরপুর থানা চাউল কল মালিক সমিতির সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস ভুইয়া, সাধারণ সম্পাদক আলিমুল রেজা হিটলার, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু হানিফ, উপজেলার সুঘাট ইউনিয়নের আ‘লীগের সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান জিন্নাহসহ কৃষকবৃন্দ।

প্রধান অতিথি (বগুড়া-৫) শেরপুর ধুনট নির্বাচনী এলাকার জাতীয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব হাবিবর রহমান তার বক্তব্যে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ধান সংগ্রহে অনিয়ম রোধে এবার কিছুটা ভিন্ন পদ্ধতিকে অনলাইন কৃষকের অ্যাপে ধান সংগ্রহ শুরু করেছে। কৃষকের অ্যাপে নিবন্ধন ও আবেদন হওয়ার পর কম্পিউটারের মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয়ভাবে কৃষক নির্বাচন করে তাদের কাছ থেকে ধান কেনার ব্যবস্থা করেছে। যেন কোন প্রকার অনিয়ম না হয়।

খাদ্য গোডাউনের ভারপ্রাপ্ত অফিসার রাশেদুল ইসলাম জানান, এ বছর উপজেলায় মোট ২৯০২ মেট্রিটন ধান এবং ১৫১৫৪ মেট্রিক টন চাল সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। সরকারি মূল্য প্রতি মণ ধান ১০৮০ টাকা আর চাল ১৬০০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। কৃষকের ধরণ ভেদে একজন সর্বোচ্চ তিন মেট্রিক পর্যন্ত ধান বিক্রয় করতে পারবে।

উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক সেকেন্দার রবিউল ইসলাম জানান, কৃষকের অ্যাপে অভ্যন্তরীণ বোরো ধান সংগ্রহ শুরু করা হলো। কৃষকের অ্যাপ প্রচারে মাইকিং, লিফলেট বিতরণ ও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ব্যানার স্থাপন করেছি। কৃষকের অ্যাপে ধান বিক্রির জন্যে উপজেলায় নিবন্ধন করেছে প্রথম পর্যায়ে ৩৬০০জন। তিনি আরোও জানান, অ্যাপ নিবন্ধনকৃত কৃষকদের ধান এ বছর ১৫ আগস্ট পর্যন্ত ক্রয় করা হবে। ধান সংগ্রহে ২য় পর্যায়ের নিবন্ধন চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *