ধুনটে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ আহত ১৫

বগুড়ার সংবাদ

তারিকুল ইসলাম, ধুনট (বগুড়া):

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় পূর্ব শক্রতার জের ধরে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষের ১৫ জন আহত হয়েছে। আহদের ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। শনিবার রাত ১০টার দিকে উপজেলার চিকাশি ইউনিয়নের বড়িয়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে পুলিশ রাতেই অভিযান চালিয়ে বড়িয়াগ্রামের বাদশা সরকার (৬০) ও তাঁর ছেলে আশিক সরকারকে (৩২) গ্রেপ্তার করেছে। রোববার দুপুরের পরকে গ্রেপ্তারকৃত পিতা-পুত্রকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, চিকাশি ইউনিয়নের বড়িয়াগ্রামের বাদশা সরকার ও হেলাল প্রামানিকের মধ্যে জমিজমা বিষয় নিয়ে পুর্ব থেকে শক্রতা ছিল। সেই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শনিবার রাত ১০টার দিকে বাদশা সরকারে লোকজন বড়িয়াবাজারের হেলাল সরকারের ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানে হামলা ভাংচুর ও লুটপাট চালায়। এসময় হেলাল প্রামানিকের লোকজন বাধা প্রদান করেন। এসময় দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে বাদশা সরকারসহ তাঁর পক্ষের ৬ জন আহত হন। অন্যদিকে বাদশা সরকারের লোকজনের হামলায় হেলাল প্রামানিকসহ তাঁর পক্ষের ৯ জন আহত হন। ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে হেলাল প্রামানিকের পক্ষের ১ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় রাতেরই তাকে বগুড়া শহীদ জিয়ারাউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালের পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনায় হেলাল প্রাসানিক বাদি হয়ে বাদশার ও তার ছেলেসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে। পুলিশ রাতের অভিযান চালয়ে বাদশা সরকার ও তাঁর ছেলেকে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে রোববার দুপুরের পর আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠায়।

ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, বাদশা সরকার ও তার দলের লোকজন হেলাল প্রামানিকের ব্যবসা প্রতিষ্টানে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর, লুটপাট করেছে। এতে বাধা দিতে গেলে তাদের মারপিটে হেলাল প্রামিনকসহ ৯ জন গুরুতর জখম প্রাপ্ত হয়েছে। ফলে হেলাল প্রামানিকের অভিযাগের ভিক্তিতে অভিযান চালিয়ে বাদশা ও তার ছেলেকে আটক করা হয়। রোববার দুপুরের পর হেলাল প্রামানিকের দায়ের করা মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অন্যান্য আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। বাদশা সরকারের অভিযোগ পেলে তদন্ত করে হেলাল প্রামানিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *