নন্দীগ্রাম আইডিপি সংস্থা থেকে দরিদ্র পরিবারের মাঝে বিনামূল্যে চারা বিতরণ

প্রধান খবর বগুড়ার সংবাদ

নবদিন ডেস্ক:

বগুড়ার নন্দীগ্রামে পোভার্টি ইরাডিকেশন প্রোগ্রাম (পিইপি) এর প্রকল্প অফিস নন্দীগ্রাম সমন্বিত উন্নয়ন প্রকল্প (নন্দীগ্রাম আইডিপি) সংস্থা থেকে পোভারটি ইরাডিকেশনের সহযোগিতায় ও পার্টনার ইন সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট ইন্টারন্যাশনাল পিএস ডি আই,ইউ,এস,এর অর্থায়নে হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে বিনামূল্যে ফল,কাঠ ও ঔষধী গাছের চারা বিতরণ করা হয়েছে। ১৩৫টি পরিবারকে একটি করে উন্নত মানের কলম আমের চারা, একটি লেবুর চারা, একটি মেহগনি গাছের চারা বিতরণ করা হয়।

২ জুলাই সোমবার সকাল ১১ টায় স্বাস্থ্য বিধি মেনে এস,আই,ডি,পির জেলা মাঠ সমন্বয়কারী আব্দুল খালেকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথী হিসাবে উপস্থিত ছিলেন নন্দীগ্রাম পৌর চেয়ারম্যান মো: আনিছুর রহমান, বিশেষ অতিথী হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মো: ফজলুর রহমান সভাপতি নন্দীগ্রাম উপজেলা প্রেসক্লাব, আলহাজ শহিদুল ইসলাম প্রক্তন শিক্ষিক আচলতা দাখিল মাদ্রাসা, ও মো: আমজাদ আকন্দ সমাজ সেবক পাইকড়কুড়ি, মোঃ শফিকুল ইসলাম সম্জ সেবক বেলঘড়িয়া। আরো উপস্থিত ছিলেন মো: কামরুল ইসলাম সিনিয়র ডিজাইনার-এসআইডিপি প্রধান অতিথী তার বক্তব্যে নন্দীগ্রাম আইডিপির বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কার্যক্রমের প্রশংসা করেন এবং সংস্থার সার্বিক কাজে সহায়তা করার আশ্বাস ব্যক্ত করেন।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে আরো বলেন, বৃক্ষ মানব জীবনের এমন এক বন্ধু, যার কোনো বিকল্প নেই। মানুষ বুঝে অথবা না বুঝে প্রয়োজনে অপ্রয়োজনে বৃক্ষ নিধন করছে। বনের পর বন উজাড় হয়ে যাচ্ছে। ধীরে ধীরে পরিবেশ দূষণ ঘটছে। পরিবেশ হয়ে উঠেছে ভারসাম্যহীন। তাই ভারসাম্য রক্ষার্থে ব্যাপকভাবে বৃক্ষ রোপণ অনিবার্য হয়ে উঠেছে। একটি দেশের মোট আয়তনের ২৫ ভাগ বনভূমি থাকা একান্ত প্রয়োজন। কিন্তু সেই তুলনায় আমাদের বন ভূমি খুবই কম। জনসংখ্যাবৃদ্ধির ফলে কাঠের প্রয়োজনীয়তা বাড়ছে ফলে বনের পর বন উজাড় হচ্ছে। বনভূমির আয়তন ক্রমেই হ্রাস যে খুবই উদ্বেগের ব্যাপার। এই অভাব পূরণের জন্য বাংলাদেশ সরকার বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি হাতে নিয়েছেন, এ বিষয়ে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছেন। বৃক্ষ ছাড়া মানুষের একদিনও চলে না। বেঁচে থাকার তাগিদে বৃক্ষরোপণ করার কোনো বিকল্প নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *