বগুড়ার শেরপুরে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়

প্রধান খবর বগুড়ার সংবাদ

এস,আই শাওন:

বগুড়ার শেরপুরে জাতীয় মৎস সপ্তাহ (২৮ আগষ্ট-৩ আগষ্ট) উদযাপন উপলক্ষে সাংবাদিকদের সাথে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২৮ আগষ্ট (শনিবার) সকালে উপজেলা পরিষদ হলরুমে শেরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ময়নুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও মৎস্য কর্মকর্তা মাসুদ রানার পরিচালনায় সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বক্তব্য রাখেন খামার ব্যবস্থাপক সন্তোষ কুমার সরকার, ক্ষেত্র সহকারী আব্দুল খালেক, মতবিনিময় সভায় সাংবাদিকদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক আলহাজ্ব মুন্সী সাইফুল বারী ডাবলু, শফিকুল ইসলাম শফিক, আব্দুল মান্নান ভূঁইয়া, আকরাম হোসাইন, সুজিত কুমার বসাক, দীপক কুমার সরকার, জাহাঙ্গীর ইসলাম, শফিকুল ইসলাম শরীফ, শাকিল মাহমুদ, আব্দুল হামিদ, শহিদুল ইসলাম শাওন, আব্দুল ওয়াদুদ, বাঁধন কর্মকার কৃষ্ণ, আবু জাহের, আব্দুল মোমিন, যোবায়ের হোসাইন প্রমুখ। মতবিনিময় পরবর্তী শেরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ময়নুল ইসলাম মৎস্য সপ্তাহের উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

এ উপজেলায় সরকারী পুকুরের সংখ্যা ১৬৬টি যার আয়তন ১৫০.৯৫ হেক্টর, বেসরকারী পুকুরের সংখ্যা ৩১৭৩ টি যার আযতন ১২১৪.১৭ হেক্টও, ৪টি ধানক্ষেতে মাছ চাষ হয় যার আয়তন ৩.৩৭ হেক্টর, (ব্যাক্তিমালিকানাধীন) প্লাবন ভূমি রয়েছে ৩টি যার আয়তন ৪২.৫০ হেক্টর, সরকারী বিল রয়েছে ২০টি যার আয়তন ৭১.৯০ হেক্টর, বাণিজ্যিক মৎস্য খামার রয়েছে ২১ টি যার আয়তন ১১.৩০ হেক্টর, খাল ১টি যার আয়তন ৯২.০০ হেক্টর, নদী ২টি যার আয়তন ৪৩০.৮০ হেক্টর। এ উপজেলায় মোট মাছের উৎপাদন হয় ৮১২৭.৮৮ মে.টন, মোট মাছের চাহিদা ৭৫৭৫.৫৪ মে.টন। উদ্বৃত্ত মাছের উৎপাদন ৫০২.৯৮ মে.টন।
উপরোক্ত তথ্যাদি উপস্থাপন করে মৎস্য কর্মকর্তা মাসুদ রানা বলেন, এ উপজেলার মৎস্য দপ্তরের প্রচেষ্টায় বরাবরই মাছের উৎপাদন উদ্বৃত্ত থাকে। বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে গৃহীত জাতীয় মৎস সপ্তাহের ন্যায় এমন নানা পদক্ষেপের ফলে আমরা এ উপজেলার মৎস্য উৎপাদনকে আরো এগিয়ে নিয়ে যেতে পারব বলে আশা রাখি।

উল্লেখ্য, ‘বেশী বেশী মাছ চাষ করি, বেকারত্ব দূর করি’-এমন শ্লোগানে এবারের জাতীয় মৎস্যসপ্তাহ উপলক্ষে সপ্তাহব্যাপী কর্মসূচীর মধ্যে রয়েছে ১ম দিনে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ ২০২১ উপলক্ষে উপজেলায় মাইকিং এবং ব্যানার ফেষ্টুন মাধ্যমে ব্যাপক প্রচারনা এবং সাংবাদিকগণের সাথে মতবিনিময় সভা। দ্বিতীয় দিনে পোনামাছ অবমুক্তকরণের মাধ্যমে মৎস্য সপ্তাহের শুভ সূচনা, মৎস্য সেক্টরে বর্তমান সরকারের অগগ্রগতি ও সাফল্য বিষয়ে নির্মিত প্রামান্য চিত্র প্রদর্শন, ৩য় দিন প্রান্তিক পর্যায়ে মৎস্যচাষী ও মৎস্যজীবিদের সাথে স্বাস্থ্য বিধি অনুসরণ পূর্বক মতবিনিময়, ৪র্থদিন মৎস্যচাষিদের মাছচাষ বিষয়ক বিশেষ পরামর্শ সেবা প্রদান, পুকুরের মাটি, পানি পরীক্ষা। ৫ম দিন মৎস্য সেক্টরে বর্তমান সরকারের অগগ্রগতি ও সাফল্য বিষয়ে নির্মিত প্রামান্য চিত্র প্রদর্শন, মৎস্যচাষিদের মাছচাষ বিষয়ক বিশেষ পরামর্শ সেবা প্রদান, পুকুরের মাটি, পানি পরীক্ষা। ৬ষ্ঠ দিন চাষী/সুফলভোগীদের মাঝে প্রশিক্ষণ/মৎস্যচাষের বিভিন্ন উপকরণ, ৭ম দিন ভিডিও কনফারেসিং এর মাধ্যমে জেলা পর্যায়ে কর্মকর্তাগনের সাথে উপজেলা পর্যায়ের কর্মকর্তাগনের মত বিনিময় এবং মৎস্য সপ্তাহের সমাপ্তি ঘোষনা। ২৮ আগস্ট থেকে ৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এসব কর্মসূচি চলবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *