জাতীয় জরুরি সেবা ‘৩৩৩’ এ কল পেয়ে খাদ্য সহায়তা দিলেন শেরপুরের ইউএনও

প্রধান খবর বগুড়ার সংবাদ

এস, আই শাওন:

রমেছা বেগম (ছদ্মনাম)। বগুড়ার শেরপুর উপজেলার শাহবন্দেগী ইউনিয়নের করোতোয়া নদী তীরবর্তী এলাকার বাসিন্দা। স্বামী পুত্র না থাকায় অভাবের সংসারে তার দিনকাটত অনাহারে অর্ধাহারে। তবে, বর্তমান সরকারের চলমান বয়স্ক ভাতা থেকে শুরু বিভিন্ন ধরনের সহায়তায় তাকে আর মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরতে হয়না। কিন্তু, বিগত ১৫দিন হলো রমেছা নানা ধরণের শারীরিক সমস্যায় ভুগছে। পাশের বাড়ির এক শিক্ষক বৃদ্ধার এ অবস্থা দেখে জাতীয় জরুরি সেবা ৩৩৩ এ কল দিয়ে বৃদ্ধার অবস্থা জানায়।

এমন আরো কয়েকজন হতদরিদ্র জাতীয় জরুরি সেবা ৩৩৩ এ কল দিয়ে সহায়তা চেয়েছিল। জাতীয় জরুরি সেবা ৩৩৩ এ কল পেয়ে অসহায় মানুষের হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দিলেন বগুড়ার শেরপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ময়নুল ইসলাম। ৯ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা পরিষদ কার্যালয় থেকে খাদ্য সামগ্রীগুলো তুলে দেয়া হয়।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোছা. শামছুন্নাহার শিউলী বলেন, ২০২১-২০২২ অর্থবছরে কোভিড-১৯ এর চলমান সংক্রমণের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত নিম্নআয়েরর মানুষকে সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে ৩৩৩ ফোন নম্বরে অনুরোধকারীদের ত্রাণ সহায়তা দেওয়ার ব্যবস্থা গ্রহন করেছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী। তাঁর এ মহৎ উদ্যোগ বাস্তবায়নের নিরিখে ৩৩৩ এ কল করে খাদ্য সহায়তা চেয়েছেন এমন ব্যক্তির মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হচ্ছে। ডিজিটাল বাংলাদেশে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে ত্রাণ সহায়তা দেওয়ার এটি একটি মহৎ উদ্যোগ। এ পর্যন্ত শেরপুর উপজেলায় ১৪০ জন হত দরিদ্র অসহায় মানুষের হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দেয়া হয়েছে। যারা ৩৩৩ এ কল দিয়ে খাদ্য সহায়তা চাচ্ছেন তাদের উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ে ডেকে এনে ইউএনও মহোদয় নিজের হাতে বিতরণ করছেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সাংবাদিক রাশেদুল হক, জাহাঙ্গীর ইসলাম, আরিফুজ্জামন হীরা, শেরপুর থানার এএসআই মো. খায়রুল ইসলাম প্রমূখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *