ধুনটে ছোট ভাইকে ফাসাতে স্ত্রীকে হত্যা: স্বামী আটক

প্রধান খবর বগুড়ার সংবাদ

ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি:

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় স্বপ্না খাতুন (৩৮) নামের এক গৃহবধূকে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে হত্যা করেছে তাঁর স্বামী বাহাচ উদ্দিন। শুক্রবার (১ অক্টোবর) দিবাগত রাতে ধুনট সদরের চালাপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মাত্র ২২ শতক জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে ছোট ভাইকে ফাঁসানোর কৌশল হিসেবে বাহাচ উদ্দিন এ ঘটনা ঘটায়। ইতিমধ্যে পুলিশ তাঁকে আটক করেছে।

নিহতের স্বজন, গ্রামবাসী ও পুলিশ জানায়, উপজেলার চালাপাড়া গ্রামের মৃত মতরাজ আলীর ছেলে বাহাচ উদ্দিন ও বেলাল হোসেন। ছোট ভাই বেলাল একটি পোষক কারখানায় চাকুরী করে। আর বড় ভাই বাহাচ উদ্দিন স্ত্রীকে সাথে নিয়ে বাড়ির অদুরে স্টলে চা বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করে। বাহাচ ও বেলালের মাঝে দীর্ঘদিন ধরে ২২ শতক জমি নিয়ে বিরোধে রয়েছে। এ ঘটনা নিয়ে থানায় পাল্টাপাল্টি অভিযোগ রয়েছে।

শুক্রবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে বাহাচ উদ্দিন বাড়ি থেকে প্রায় ২০০ গজ দুরে নিজের চা স্টলে স্ত্রী স্বপ্না খাতুনকে ডেকে নেয়। এরপর ধারালো অস্ত্র দিয়ে স্বপ্নার পেটে আঘাত করে। এসময় স্বপ্না খাতুনের চিৎকারে প্রতিবেশী ও স্বজনরা ঘটনাস্থল থেকে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনেন। সেখানে কত্যর্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এদিকে সংবাদ পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শনকালে বাহাচ উদ্দিনকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত স্বপ্না খাতুনের মেয়ে হোসনে আরা বলেন, ঘটনাস্থলে গিয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় মাকে পেয়েছি। সেখান থেকে তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

ধুনট থানার ওসি কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, স্বপ্না খাতুনকে তার স্বামী বাহাচ উদ্দিন হত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। একারনে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে আটক করা হয়েছে। নিহত স্বপ্নার মৃতদেহ ময়না তদন্তের বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *