বগুড়ায় টিকা নেওয়ার লাইন থেকে স্বর্ণের চেন ছিনতাই, কারাগারে ৫ নারী

প্রধান খবর বগুড়ার সংবাদ

নবদিন ডেস্ক:

করোনার টিকা গ্রহণের লাইনে দাড়ানো অবস্থায় মরিয়ম বেগম (৫০) নামের এক নারীর গলা থেকে স্বর্ণের চেন ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। পালানোর সময় পাঁচ নারীকে আটকের পর পুলিশে দিয়েছে স্থানীয় জনতা।

শনিবার (১৬ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টায় বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ ঘটনা ঘটে।

আটকরা হলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলার দলমডল গ্রামের ইউনুস আলীর স্ত্রী নাজমা বেগম (৩৫), কাওসার আলীর স্ত্রী ফুলতারা বেগম (২৫), মো. শামীমের স্ত্রী রাবেয়া বেগম (২১), হবিগঞ্জ জেলা সদরের উচাইল গ্রামের আলমগীর হোসেনের স্ত্রী শাহানা বেগম (২৫) ও একই জেলার চুনারুঘাট উপজেলার জোয়ার লালচাঁদ গ্রামের বাশির উদ্দিনের স্ত্রী জোসনা বেগম (২৫)।

পুলিশ জানায়, শনিবার সকালে শিবগঞ্জ উপজেলার মোকামতলা ইউনিয়নের চকপাড়া গ্রামের হুজ্জাতুল ইসলামের স্ত্রী মরিয়ম বেগম (৫০) করোনার টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আসেন। এরপর তিনি টিকাদান কেন্দ্রের লাইনে দাঁড়ান। এমন সময় নাজমা বেগমসহ তার চার সহযোগী মরিয়ম বেগমের চারপাশে গা ঘেঁষে দাঁড়ান। মরিয়ম বেগম তাদের সরে দাঁড়াতে বললেও তারা কোনো কথা শোনেননি।

এক পর্যায়ে নাজমা বেগম মরিয়ম বেগমের পেছনে দাঁড়িয়ে বোরকার ভেতরে হাত দিয়ে গলায় থাকা স্বর্ণের চেন ছিনিয়ে নিয়ে পালাতে থাকে। এ সময় মরিয়ম বেগম চিৎকার দিলে উপস্থিত জনতা নাজমাকে হাতেনাতে আটক করে। নাজমার আটক হওয়া দেখে তার অন্য সঙ্গীরা পালাতে গেলে স্থানীয়রা তাদেরও আটক করে পুলিশে খবর দেন।

শিবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিরাজুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় মরিয়ম বেগমের ছেলে হাসান আলী বাদী হয়ে থানায় পাঁচজনের বিরুদ্ধে চুরির মামলা করেছেন। সেই মামলায় তাদের গ্রেফতার দেখিয়ে বিকেলে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। চুরি যাওয়া চেন উদ্ধার করে মরিয়ম বেগমকে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

ওসি বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়- তাদের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও হবিগঞ্জে হলেও তারা মোকামতলায় বাড়ি ভাড়া নিয়ে থাকতেন। তাদের কাজই হলো জনবহুল এলাকায় গিয়ে পকেট কাটা, স্বর্ণালংকার ও মোবাইল চুরিসহ নানা ধরনের প্রতারণামূলক কাজ করা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *