বগুড়ার ধুনটে মাটি খুড়লেই বের হচ্ছে ধোয়া; গ্রামবাসীর মধ্যে আতঙ্ক

প্রধান খবর বগুড়ার সংবাদ

নবদিন ডেস্ক:

খালি পায়ে হাঁটলে অতিরিক্ত তাপ অনুভূত হচ্ছে। মাটি খুঁড়লে বের হচ্ছে ধোঁয়া। সঙ্গে পচা দুর্গন্ধ ভেসে আসছে। আশ্চর্য এমন পরিস্থিতিতে আতঙ্ক বিরাজ করছে গ্রামবাসীর মধ্যে। বগুড়ার ধুনট উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের শ্যামগাঁতি গ্রামের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে এমন অলৌকিক ঘটনা ঘটেছে। এতে এলাকাজুড়ে বিরাজ করছে অজানা আতঙ্ক। মাটি থেকে ধোঁয়া বের হওয়ার দৃশ্য দেখতে দূর-দূরান্ত থেকে লোকজন এসে ভিড় করছে ঘটনাস্থলে। এমন পরিস্থিতির খবর জানার পরেও পুলিশ প্রশাসনের কেউ ঘটনাস্থলে জাননি।

ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ কৃপা সিন্ধু বালা জানান, তিনি এমন ঘটনার কথা শুনেছেন। দিন পার হয়ে গেলেও তিনি সেখানে পরিদর্শনে জাননি। আর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সঞ্জয় কুমার মহন্ত অফিসিয়াল কাজে জেলায় অবস্থান করার কারণে তিনিও বিকাল ৫টা পর্যন্ত ঘটনাস্থলে যেতে পারেননি। এমনকি খোদ মথুরাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ সেলিমও ঘটনাটি জানার পরেও সেখানে জাননি। তিনি বলেন, আমি বিষয়টি জেনেছি। এখন খেলা দেখছি আজ যেতে পারবো না কাল যাবো।

এদিকে প্রশাসনের কোনো কর্মকর্তা এমন ঘটনা জানার পরেও ঘটনাস্থলে না যাওয়ায় সাধারণ লোকজন আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে। স্থানীয় যুবক নয়ন, পিয়াল, শাহাদাৎ, তারেক আপ বরকত উল্লাহ আপাল বলেন, গত কয়েকদিন হলো রাস্তা দিয়ে হাঁটতে গেলে গরম অনুভব হচ্ছিল। কেন গরম হচ্ছে এমন কৌতূহলে গতকাল সকাল ৬টায় ঐ জায়গায় খুঁড়তে থাকি খোঁড়ার একপর্যায়ে কালো ধোঁয়ার সঙ্গে পচা দুর্গন্ধ বের হতে থাকে। মুহূর্তের মধ্যে আশপাশের গ্রামে জানাজানি হওয়ায় অনেক মানুষ দেখতে আসছে। তারা আরও বলেন, এ খবর গোটা উপজেলায় ছড়িয়ে পড়লেও পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে কেউ আসেননি। স্থানীয় বাসিন্দা শফিকুল আলম বলেন, মাটি খোঁড়ার পর এখানে ম্যাচের কাঠিতে আগুন ধরিয়ে গর্তের ভেতরে দিয়ে দেখেছি কিন্তু গ্যাসের কোনো কিছু খুঁজে পাইনি। এদিকে ধোঁয়া বের হওয়া বন্ধ না হওয়ায় গ্রামের সবাই আতঙ্কে আছে। ধুনট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সঞ্জয় কুমার মহন্ত বলেন, এমন খবর আমি পেয়েছি। অফিসিয়াল কাজে বাইরে থাকায় ঘটনাস্থলে যেতে পারিনি। তবে খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করবেন বলে জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *