বগুড়ার শেরপুরে ভোট গ্রহণ কর্মকর্তা পরিবর্তন করতে প্রার্থীদের অভিযোগ

প্রধান খবর বগুড়ার সংবাদ রাজনীতি সংবাদ

বগুড়ার শেরপুরে নির্বাচনী কর্মকর্তা পরিবর্তন করতে কয়েকজন সাধারণ সদস্য পদপ্রার্থী শেরপুর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও ইউএনও বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। ৯নভেম্বর (মঙ্গলবার) এ অভিযোগ দাখিল করেন তারা।

অভিযোগসূত্রে জানা যায়, উপজেলার ১০ নং শাহবন্দেগী ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের সাধারণ সদস্য পদপ্রার্থী মোঃ সাকিব, মোঃ মিজানুর রহমান, মোঃ ইয়াছিনুল কবির (বকুল) উপজেলার ফুলতলা দাখিল মাদ্রাসা ও নওদাপাড়া মুন্সি পাড়া বালিকা দাখিল মাদ্রাসা ভোট কেন্দ্রে প্রিজাইডিং অফিসার, সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ও পোলিং এজেন্ট পরিবর্তন করতে এ অভিযোগ দিয়েছেন তারা।

কারণ হিসেবে অভিযোগপত্রে উল্লেখ করা হয়েছে একই ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডে সাধারণ সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দিতা করছেন উপজেলার ছোনকা রহিমা নওশের অনার্স কলেজে কর্মরত প্রার্থী প্রভাষক জাহাঙ্গীর আলম জোহা। তিনি এলাকায় প্রচার করছেন যেকোন মূল্যে ভোট কারচুপি করে হলেও তিনি নির্বাচিত হবেন। এজন্যই তার বর্তমান কর্মস্থলে চাকুরিরত সকল শিক্ষকদের ফুলতলা দাখিল মাদ্রাসা ও নওদাপাড়া মুন্সি পাড়া বালিকা দাখিল মাদ্রাসা ভোট কেন্দ্রে প্রিজাইডিং অফিসার, সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ও পোলিং এজেন্ট হিসাবে ভোট গ্রহণ কর্মকর্তা নিয়োগ দেওয়া আছে।
অভিযোগকারী ৩ সাধারণ সদস্য পদপ্রার্থী এ ঘটনাকে ভোট কারচুপি করার সু-পরিকল্পিত ও গভীর ষড়যন্ত্র হিসাবে উল্লেখ করেছেন। তাছাড়া, উল্লেখিত কেন্দ্র সমূহে সকল ভোট গ্রহণ কর্মকর্তাদের পরিবর্তন না করলে তারা ভোট বর্জন করার মত সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হবে বলে জানান। এমন পরিস্থিতিতে এলাকায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে বলেও জানান তারা।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে শেরপুর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোছা. আছিয়া খাতুন এ প্রতিবেদককে জানান, এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি এবং অভিযোগটিও সত্য। উক্ত কেন্দ্রগুলোর প্রিজাইডিং অফিসার, সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ও পোলিং এজেন্ট পরিবর্তন করা হবে বলেও আশস্ত করেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *