বগুড়ায় গুলিবিদ্ধ স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতার মৃত্যু

প্রধান খবর বগুড়ার সংবাদ রাজনীতি সংবাদ

পারভীন লুনা, বগুড়া:

বগুড়ায় মাদক,জুয়া ও আধিপত্য বিস্তার নিয়ে স্বেচ্ছাসেবকলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে গোলাগুলিতে গুলিবিদ্ধ স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা নাজমুল হাসান অরেঞ্জ (২৮) মারা গেছেন।

সোমবার (১০ জানুয়ারী) রাত ১১ টায় বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিবিড় পর্যবেক্ষন ইউনিটে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

গত ২ জানুয়ারী রবিবার রাত ৮টার দিকে শহরের মালগ্রাম এলাকায় গোলাগুলিতে তিনি গুলিবিদ্ধ হন। এসময় স্বেচ্ছাসেবকলীগের কর্মী মিনহাজ হোসেন আপেল(২৪) ও গুলিবিদ্ধ হন। নাজমুল হাসান অরেঞ্জ শহরের মালগ্রাম ডাবতলা এলাকার রেজাউল করিমের ছেলে। এছাড়াও তিনি স্বেচ্ছাসেবকলীগ বগুড়া জেলা শাখার সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক ছিলেন।

জানাগেছে, মালগ্রাম এলাকায় মাদক,জুয়ার নিয়ন্ত্রন ও আধিপত্য বিস্তার নিয়ে গত কয়েকদিন ধরে মালগ্রাম ডাবতলা এলাকায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও অস্ত্রের মহড়া চলে আসছিল। এর জের ধরে ২ জানুয়ারী রাত ৮টার দিকে স্বেচ্ছাসেবকলীগ কর্মী, রাসেল,রাসানী ও সুমনের নেতৃত্বে মালগ্রাম ডাবতলা এলাকায় আরেক গ্রুপের উপর হামলা করে। এতে অরেঞ্জ ও আপেল গুলিবিদ্ধ হন। পরে স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়।

ঘটনার পরের দিন অরেঞ্জের স্ত্রী স্বর্নালী বাদী হয়ে বগুড়া সদর থানায় মামলা করেছেন। এরমধ্যে নাজমুল হাসান অরেঞ্জ চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।
এদিকে ওরেঞ্জ মারা যাওয়ার সংবাদে উত্তেজনা দেখা দিলে মালগ্রাম ডাবতলা ও মালগ্রাম দক্ষিনপাড়া এলাকায় বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়।
বগুড়া সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সেলিম রেজা বলেন এলাকায় টহল বাড়ানো হয়েছে। মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে রাখা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *