গর্ভধারণের ২য় সপ্তাহের লক্ষণ এবং উপসর্গ

দেশজুড়ে লাইফ স্টাইল

মার্জিয়া ইসলাম:

আস সালামু আলাইকুম এভরিঅন- কেমন আছেন সবাই-? আশা রাখি ভাল আছেন- সবাইকে ZAHID IT চ্যানেলের পক্ষ থেকে- প্রেগনেন্সি টিপসে স্বাগতম।
আজ আপনাদের জানাব- গর্ভধারণের ২য় সপ্তাহের লক্ষণ এবং উপসর্গ সম্বন্ধে- চলুন তবে শুরু করা যাক।
তার আগে বলে নিচ্ছি- আপনি যদি এই চ্যানেলে নতুন হয়ে থাকেন তাহলে Please- hit The Subscribe Button আর যদি ইতিমধ্যে Subscribe করে থাকেন Thank You So Much

গর্ভধারণের বিষয়টি- দ্বিতীয় সপ্তাহেও আপনি সুনির্দিষ্টভাবে অনুভব করতে পারবেন না। কারণ- আপনার শরীরে দৃশ্যমান কোন পরিবর্তন এখনও ঘটেনি। কিন্তু ইতিমধ্যে- আপনার শরীরের ভেতরে ঠিকই পরিবর্তন শুরু হয়ে গিয়েছে।

পিচ্ছিল সার্ভিকাল শ্লেষ্মা (Slippery cervical mucus)

Slippery cervical mucus (স্লিপারি সার্ভিক্যাল মিউকাস)- এটি এক ধরণের স্রাব- যা মাঝে মাঝেই আপনি অনুভব করতে পারবেন। ঠিক ডিম্বস্ফুটনের কাছাকাছি সময়ে- এই স্রাব অনেকটা পরিষ্কার, পিচ্ছিল এবং ডিমের সাদা অংশের মত আঠালো মনে হতে পারে।

মৃদু ক্র‍্যাম্প বা ব্যাথা Abdominal Cramps

অধিকাংশ নারীদের ক্ষেত্রেই দেখা যায়-ডিম্বস্ফুটনের সময় তাদের পেটে ক্র্যাম্পস্- অথবা ক্ষণস্থায়ী তীব্র ব্যাথা অনুভব হয়। আবার কারো কারো ক্ষেত্রে- কোমরের পেছনে বা কোন এক পাশেও ব্যাথা হতে পারে- পিরিয়ড চক্রের মাঝামাঝি সময়ে- ডিম্বস্ফুটনে এই ব্যাথা হয় বলে একে মিডেল পেইনও বলা হয়।

কড়া ঘ্রাণ, স্তনে ব্যাথা Strong smelling, Breast pain

এই সময়ে আপনার শরীরের ঘ্রাণ বেশ তীব্র হতে পারে- এছাড়াও- এসময় ডিম্বস্ফুটনে- শরীরের হরমোনের পরিবর্তনের ফলে- স্তনে ব্যাথা হতে পারে ফুলে যেতে পারে কিংবা কালশিটে দাগ হতে পারে। ইস্ট্রোজেন বৃদ্ধির ফলে এসমস্যাগুলোর সূত্রপাত ঘটে।

জরায়ু মুখে পরিবর্তন Cervical Changes

ডিম্বস্ফুটনের সময় জরায়ুমুখে কিছু পরিবর্তন লক্ষ্য করা যায়- এসময় জরায়ুমুখ বেশ কোমল- ভেজা এবং অনেক বেশী খোলা থাকে । গর্ভধারণের দ্বিতীয় সপ্তাহে- এসব লক্ষণই বলে দিবে- আপনি গর্ভধারণের দ্বিতীয় সপ্তাহে অবস্থান করছেন।

ব্যাসাল বডি টেম্পারেচার BBT) Basal body temperature বা শরীরের তাপমাত্রা বৃদ্ধি

গর্ভধারণরে ২য় সপ্তাহে ডিম্বস্ফুটন হলে- আপনার শরীরের তাপমাত্রা কিছুটা বৃদ্ধি পাবে- এবং পরবর্তী পিরিয়ড হওয়ার আগ পর্যন্ত-শরীরের তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ার প্রবণতাটা চলতেই থাকবে-
আপনি যদি এর আগে নিয়মিত শরীরের তাপমাত্রা অনুমান করে থাকেন-তাহলে দেখতে পারবেন- বর্তমানে আপনার শরীরের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি- এতে করেও বুঝে নিতে পারবেন- খুব সম্ভবত আপনি গর্ভধারণ করেছেন।

ঘন ঘন প্রসাব frequent urination first signs of pregnancy

হরমোনগত পরিবর্তনের কারণে- এইসময় শরীরে যেসব পরিবর্তন আসে তার একটি হলো- রক্তপ্রবাহ বৃদ্ধি পাওয়া- রক্তপ্রবাহ বৃদ্ধির ফলে- ঘন ঘন প্রস্রাবের বেগ হতে পারে। যা আপনার শরীরে বাচ্চা বড় হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে এই সমস্যা বাড়তেই থাকবে।

গর্ভকালীন ২য় সপ্তাহে পেটের অবস্থা

নিষিক্ত ডিম্বাণু এখনো আপনার গর্ভের দেয়ালে সংযুক্ত হয়নি- এই অবস্থায়-আপনি আপনার পেটের মধ্যে কোনো পরিবর্তন দেখতে পারবেননা । কিছু মহিলা ডিম্বস্ফোটনের সময়- পেলেভিক ব্যথার অভিযোগ করেন, এবং সম্ভবত এই সময়ে অনুভব করার মধ্যে এটি সবচেয়ে বেশি হয় ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *