গর্ভধারণের ৩য় সপ্তাহের লক্ষণ এবং উপসর্গ

দেশজুড়ে লাইফ স্টাইল


আজ আপনাদের জানাব গর্ভধারণের ৩য় সপ্তাহের লক্ষণ এবং উপসর্গ সম্বন্ধে চলুন তবে শুরু করা যাক।

গর্ভাবস্থার ৩য় সপ্তাহে ডিম্বানু শুক্রানুর দ্বারা নিষিক্ত হওয়ার সাথে সাথে ডিম্বাণু ঘিরে একটি আবরণ তৈরী হয়। এসময় আপনার গর্ভের শিশুর আকার ঠিক একটি গোলাকার বিন্দুর মত দেখায়। এই নিষিক্ত ডিম্বানুটি ধীরে ধীরে জরায়ুর দেয়ালে বসে পড়ে। শুরু হয় কোষ বিভাজন আর তা থেকে দীর্ঘ নয়/দশ মাসের পরিক্রমায় গঠিত হয় পরিপূর্ন মানব সন্তান। এ সময় বংশগতির নিয়ন্ত্রক উপাদান তথা জীনগত গঠন সম্পূর্ণ হয় এবং শিশুর লিঙ্গ, চুল ও চোখের রঙ- এধরনের বৈশিষ্ট্যগুলো নির্ধারিত হয়ে থাকে।

স্তন নরমবোধ হওয়া
Breast tenderness

গর্ভকালীন সময়ে স্বাভাবিক কারণেই নারীদের স্তনে আকার আকৃতিগত পরিবর্তন পরিলক্ষিত হয় এ পরিবর্তন গর্ভকালীন সময়ের শুরু থেকে শেষ সময় পর্যন্ত চলমান থাকে। এটিকে অনেকটা প্রকৃতির নিয়মই বলা চলে। তবে মনে রাখবেন স্তণের আকার স্ফীতির কারণে সেখানে স্ট্রেচমার্ক বা ফাঁটা দাগ দেখা দেওয়ার পাশাপাশি চুলকানিও হতে পারে। বিশেষ করে, প্রথম বারের মত মা হওয়া নারীরা এটাকে নাটকীয় পরিবর্তন মনে করলেও ভয় পাওয়ার কিছু নেই।

(HCG) হরমোনের মাত্রা বৃদ্ধি
Human Chorionic Gonadotropin

গর্ভাবস্থার এ সময়ে শরীরে উক্ত হরমোনের বৃদ্ধির ফলে কোন কোন খাবারে অরুচি, মাথা ঘোরা এবং ক্লান্তিভাবসহ আরো নানা উপসর্গ দেখা দিতে পারে।


বমি বমি ভাব
Nausea and Vomiting during pregnancy

গর্ভাবস্থার এসময় বমি বমি ভাব হওয়াকে মর্নিং সিকনেস বলা হলেও এ বমি বমি ভাব শুধুমাত্র সকাল বেলাতেই নয় বরং সারাদিন-ই চলতে পারে। কারো কারো ক্ষেত্রে সকাল বেলার সময়টা অনেক বেশী খারাপ লাগলেও দিন গড়ানোর সাথে সাথে খারাপ লাগার প্রবণতাটা কমতে থাকে। তবে বমি বমি ভাবটা যেকোন সময় চলে যেতে এবং ফিরে আসতে পারে।

এ লক্ষণগুলো একজন গর্ভবতী মা থেকে অন্যজনের ভিন্ন হতে পারে। তবে অধিকাংশ মায়েরাই- গর্ভধারণের তিনমাস পর্যন্ত বমি বমিভাব সমস্যায় ভুগে থাকে।

ব্লিডিং বা স্পটিং
Bleeding or spotting during pregnancy

গর্ভধারণের দ্বিতীয় সপ্তাহের লক্ষণে বলা হয়েছিল এসময় মাঝে মাঝেই আপনি এক ধরণের সাদা স্রাব অনুভব করতে পারবেন। তৃতীয় সপ্তাহে এসে এ স্রাব লালচে বা গোলাপী হিসেবেও খেয়াল করতে পারেন। শরীরে প্রজেসটরন নামক হরমোনের অভাবের ফলে এরকমটা হয়ে তাকে। লালচে বা গোলাপী হিসেবে খেয়াল করলেও এটাকে মাসিক ভাবার কারণ নেই। তবে লালচে বা গোলাপী স্রাব চলাকালীন সময়ে ব্যথা অনুভব করলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

এতক্ষণ আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য ধন্যবাদ। পরবর্তী ভিডিওতে সপ্তাহ অনুযায়ী গর্ভাবস্থা সিরিজের ৪র্থ সপ্তাহের লক্ষণ ও পরিবর্তন নিয়ে আপনাদের সামনে হাজির হবো।

ভাল থাকবেন সুস্থ থাকবেন
আল্লাহ হাফেজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *