শেরপুরে আইন-শৃঙ্খলা ও উন্নয়ন কমিটির সভায় ইউএনও’র উপর হামলায় নিন্দা প্রস্তাব

প্রধান খবর বগুড়ার সংবাদ

নবদিন ডেস্ক:
বগুড়ার শেরপুরে উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির এবং উপজেলা পরিষদের উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভায় ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহিদা খানম ও তাঁর পিতা বীরমুক্তিযোদ্ধা উমর আলীকে হত্যার উদ্দেশ্যে নৃশংসভাবে চালানো হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ প্রস্তাব গৃহীত হয়েছে।

১০ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার শেরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ লিয়াকত আলী সেখের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভা এবং উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উপজেলা পরিষদের উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভায় এই নিন্দা প্রস্তাব গৃহীত হয়। উভয় সভার শুরুতেই উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ লিয়াকত আলী সেখ বলেন যে, দিনাজপুর জেলার ঘোড়াঘাট উপজেলার ইউএনও এবং তাঁর বীরমুক্তিযোদ্ধা পিতাকে হত্যার উদ্দেশ্যে ইউএনও এর সরকারী বাসভবনের ভেন্টিলেটর ভেংগে ভিতরে ঢুকে প্রথমে পিতাকে আহত করে বাথরুমে আটকে রাখা হয়। এরপর ইউএনওকে হাতুড়ি দিয়ে উপর্যুপরি আঘাত করে দুর্বত্তরা পালিয়ে যায়। বিয়ষটি অত্যান্ত দুঃখজনক,দূর্ভাগ্যজনক। এ বিষয়টির উপর আলোচনায় অংশ নেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মজিবুর রহমান মজনু, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শাহজামাল সিরাজী, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও সাপ্তাহিক আজকের শেরপুর পত্রিকার সম্পাদক আলহাজ্ব মুন্সী সাইফুল বারী ডাবলু, উপজেলা সমাজসেবা অফিসার ওবাইদুল হক, মুক্তিযোদ্ধা ওবায়দুর রহমান, শেরপুর থানার এসআই সাচ্চু বিশ্বাস, খামারকান্দী ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম রাঞ্জু, সীমাবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান বাবু গৌরদাস রায় চৌধুরী, মির্জাপুর ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোহাম্মদ আলী মুন্টু, শেরপুর ডিজে হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক আখতার উদ্দিন বিপ্লবসহ আরো অনেকে।

সভায় বক্তারা এ ধরণের ন্যাক্কারজনক হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, হামলাকারী যেই হোক না কেন তাদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মস্থলে নিরাপত্তা বিধান নিশ্চিত করতে হবে। এ ধরণের নির্মম ঘটনার যেন আর পুনরাবৃত্তি না হয় সে বিষয় নিশ্চিত করতে সরকারের প্রতি অনুরোধ জানানোর পাশাপাশি

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীসহ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ হামলার ঘটনায় যে পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন এ জন্য সন্তোষ প্রকাশ ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ২সেপ্টেম্বর (বুধবার) দিনাজপুর জেলার ঘোড়াঘাট উপজেলার ইউএনও ওয়াহিদা খানমের সরকারি বাসভবনে সন্ত্রাসী হামলায় তিনি ও ও তার বাবা ওমর আলী গুরুতর আহত হন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *